°°°°°মুসলিম হলে অবশ্যই জানুন°°°°° ••••••••••••বিশেষ কিছু কথা•••••••••••• ~~~Rand পরিচিতি=বিষেস পর্ব~~~

আপনারা জানেন আজকের সেই
নব্য ইংরেজরা আবার মাঠে নেমেছে.
2007 সালের Rand এর একটি
রিপোর্ট থেকে তা পরিস্কার হয়ে যায়.
যা আগেও জানিয়েছি Rand হচ্ছে
এমেরিকার একটি গোপণ সংস্থা
ইহুদী কতৃক পরিচালিত জার 1600
মেধাবী কর্মী রয়েছে, জাদের সুধুমাত্র
কাজ হচ্ছে ইসলামকে নিয়ে গবেষণা
মুসলিমদের অগ্রযাত্রা ঠ্যাকানো.
এবং মুসলিমদের মধ্যে কি ভাবে খতি
করা যায়,ইসলামকে কিভাবে ধংস
করাযায়,এজন্য রিপোর্ট তৈরি করে
এমেরিকান সরকারকে সরবরাহ করা.
এই সংস্থা রিপোর্ট করেছে:অধিকাংশ
মুসলিম বিশ্বে যে সংগ্রাম চলছে তা
সত্যিকার অর্থে একটি (মত আদর্শের)
যুদ্ধ, এর ফলাফল নির্ধারণ করবে
মুসলিম বিশ্বের আগামী দিনের পথনির্দেশনা,
এরা পরিস্কার করে দিয়েছে বর্তমান
যে মুসলিম দেশগুলোতে একদল
যুবক নাস্তিকদের পখখো নিচ্ছে ,আর
একদল ইসলামের পখখো নিচ্ছে.
এটা কোনো সাধারণ বিসয় না বিচ্ছিন্ন
কোনো ব্লগারের বিসয় না.এমেরিকার
Rand এর রিপোর্ট থেকে তা পরিস্কার
হয় গেছে এটি একটি মতআদর্শ গত
যুদ্ধ,এই যুদ্ধের ফলাফলই নির্ধারন
করবে আগামী বিশ্ব মুসলিমদের কোন
দিকে যাবে,আপনারা জানেন এটা
পরিস্কার এই সাহাবাগের বিচ্ছিন্ন কয়একটা
নাস্তিক মোরতাদ ব্লগারদের সম্মেলন
ছিলনা.এটা ছিলো পরিখখা মূলোক
ওরা মতআদর্শ যুদ্ধে কতদূর এগিয়েছে,
এজন্য তারা বিভিন্ন যায়গায় সমাবেশ
করে যাচাই করা শুরু করেছিল,যখন
দেখলো চতুর দিক থেকে এদেশের তাওহিদী
জনতা নিজেদের সকল মতামত
মতবিরোধ ভুলে গিয়ে একদলে
একছায়াতলে চলে আসতে শুরু করেছে,
তখন এই ভাওয়া ব্যাং এর দল আবার কুয়ার’
মদ্ধে যোগ দিয়েছে,কিন্তুু ভুললে চলবেনা
এই ভাওয়া ব্যাং এর দল মরে যায় নাই.
আপনারা জানেন এরপরে লিখেছে
যুক্তরাসট্রের প্রতিরক্ষা মনত্রনালয়
এর একটি রিপোর্ট এভাবে করা
হয়েছে :যুক্তরাস্ট এমন এক যুদ্ধে জড়িত
যা একিসাথে অস্তের ও আদর্শের.
এই যুদ্ধের চুড়ান্ত বিজয় তখনই অর্জিত
হবে.যখন চরমপন্থিদের আদর্শেকে তাদের
নিজেদের সমাজের জনগণ এবং
সমর্থকদের চোখে কলংকিত অথবা
অখ্যাত করাযাবে.
বুঝাগেলো আজকের যে ইসলামের
বিরুদ্ধে যে নাস্তিক ব্লগাররা অবস্থান নিয়েছে,
তাদের পখখে একদল দালাল দরবারী
আলেম নব্য ইংরেজদের পাচাটা গোলামরা
মাঠে নেমেছে এদেরকে এমেরিকা প্রশিক্ষণ
দিয়ে দিয়ে ইমাম প্রশিক্ষণের নামে এমেরিকার
থেকে টাকা দিয়ে এই দালাল গুলোকে
তৈরি করা হয়েছে,এজন্য তাদের
সামনে এমেরিকার নর্তকী এনে
ব্যালে ডান্স করানো হয়েছিল.
ভাইয়েরা আমার এরপরে us এর
একটি রিপোর্টে বলাহয়েছে যেটা
এমেরিকার একটা গূরুত্বপূর্ন রিপোর্ট
ছিলো :সেখানে বলাহয়েছে 9/11
এর পরে বার বার ভুল পদক্ষেপ নেওয়ার
পর আজ ওয়াশিংটন পাল্টা আক্রমণ চালিয়ে
যাচ্ছে,স্নায়ুযুদ্ধ পরবর্তী সময়ের তুলনায়
নজির বিহীন এক রাজনৈতিক যুদ্ধের প্রচারণা
শুরুকরেছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার.
সাময়িক মনস্তানতৃক অভিযান এবং
CI এর গোপণ অভিযান পরিচালনার
জন্য নিয়োজিত দলগুলো থেকে শুরু করে
প্রকাশে যোগাযোগ মাধ্যম রেডিও টিভি
সংবাদপত্র ইত্যাদিকে এবং বুদ্ধিজীবীদের
অর্থের যোগান দেওয়া প্রযন্ত ওয়াশিংটন
মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার ব্যায় করছে.
এমন এক প্রচার অভিযানে যার লখখো
শুধু মুসলিম সমাজকেই নয় ইসলামকেও
প্রভাবিত করা.এটাই আসল টর্গেট,
শুধু মুসলিমকে নয় ইসলামকেও টার্গেট
করতে হবে..আপনারা জানেন
সেজন্য ওই একই প্রবন্ধে লেখা হয়েছে
ওয়াশিংটন গোপণ ভাবে কমপক্ষে
24 টা দেশে অনুদান প্রদান করেছে
রেডিও এবং টেলিভিশনে জিহাদ
বিমুখ ইসলামী অনুষ্ঠান প্রচারের জন্য
মুসলিম স্কুলে জিহাদ বিরোধী কোর্স
চালুর জন্য,অনুদান প্রদান করেছে
মুসলিম বুদ্ধিজীবীদের জন্যে,
ও রাজনৈতিক কর্মশালার জন্য
ও অনন্য কর্মশালার জন্য.
শুধু মাত্র মডারেট ইসলামকে
উৎসাহিত করার জন্য…….

এটা মুফতী জসিমউদ্দিন রহমানীর
লেকচার থেকে লেখা….

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s