★শহিদ সাইখ ওসামা বিন লাদেন(রহঃ)★ ★★এর জীবনের বাস্তব একটি ঘটনা★★

ছোটবেলা থেকেই ওসামা বিন
লাদেন রহঃ ছিলেন ধর্মপরায়ণ
শান্তশিষ্ট ,ধী শক্তির অধিকারী ছেলে।
তার অন্যভাইয়েরা যখন খেলা
করতো তখন কেবল তিনিই তার
বাবার সাথে থাকতেন।
বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতেন।
তার পিতার ও প্রিয় ছিলেন তিনি।
ওসামা যখন ৯ বছরের ছিলেন
,তখন তিনি প্রায়ই ফজরের ওয়াক্তের
কিছু আগে একটাস্বপ্নদেখতেন যে,
তিনি সমতল এলাকায় একাকী
দাঁড়িয়ে আছেন ।
আর কিছু সাদা ঘোড়ায় আরোহিত
লোক তার চারদিক অতিক্রম করছে
যাদের মাথায় ছিলো কালো পাগড়ী।
এদের একজন যার চোখ ছিলো
জ্যোতিময় এসে তাকে জিঞ্জেস
করলো ,’হে ছেলে ! তুমি কি ওসামা
বিন মুহাম্মদ বিন লাদেন ?
‘তিনি বললেন ,’হ্যাঁ আমি ই ওসামা।
ঘোড়সওয়ারটি আবার ও জিক্তেস
করলো ,’তুমিই কি ওসামা বিন মুহাম্মাদ
বিন লাদেন ?’তিনি আবার ও বললেন
’আল্লাহর কসম! হে আমি ই সেই ।
ঘোড়সওয়ারটি তখন তাকে একটি
(কালিমাখচিত কালো) পতাকা দিলো
এবং বললো ,এই পতাকা আল-কুদসের
প্রবেশপথে মুহাম্মদ বিন আব্দুল্লাহ আল
হোসাইনীর (ইমাম মাহদীর)
হাতে তুলে দিও।
অতঃপর তারা তাকে রেখে চলেগেলো।
ওসামা তার এই স্বপ্নের কথা তার
বাবাকে জানালেন।
তার বাবা আশ্চর্য হলে ও তখন তা
এতো সিরিয়াসলি নেন নি।
পরবর্তীতে কর্মব্যবস্হার কারণে এই
ঘটনাটি তিনি ভূলে যান।
কিন্তু ওসামা এই স্বপ্নটি বহুবার ফজরের
ওয়াক্তের আগে দেখতে পেতেন।
এই ঘটনায় ওসামার পিতা চিন্তিত
হলে গেলেন।
ছেলেকে নিয়ে একজন অভিক্ত
শায়েখের কাছে গেলেন এবং
শায়েখ কে সব খুলে বললেন।
শায়েখ সমস্ত ঘটনাটি শুনে কিছুক্ষণ
ভাবলেন , পরে ওসামাকে কিছু প্রশ্ন
করলেন আর বললেন সে যেন
সত্যতার সাথে প্রশ্নগুলার উওর দেয়।
তিনি ওসামাকে জিক্তেস করলেন ,’বাবা
,ঘোড়সওয়ারদের হাতে কী রকম
পতাকা ছিলো ,তোমারকি কিছু মনে
আছে ?’ওসামা বললেন ,’হ্যাঁ পতাকাটি
সৌদি আরবের পতাকার মতই ।
তবে সবুজ না কালো রংয়ের
আরপতাকায় সাদা রংয়ের লেখা.
.'(এই পতাকা হলো খিলাফতের পতাকা)।
শায়েখ ওসামাকে আবার জিক্তেস
করলেন ,’আচ্ছা তুমি কি স্বপ্নে কখনো
নিজেকে যুদ্ধ করতে দেখো ?
’ওসামা বললেন ,’হ্যাঁ আমি প্রায়ই দেখি।
একথা শুনে শায়েখ ওসামার পিতাকে
বললেন ,’আচ্ছা আপনার পূর্বপুরুষ
কোথা থেকে এসেছেন?’মুহাম্মদ লাদেন
বললেন ,’ইয়ামেনের হাদরামাউত থেকে।
এটি সানাওয়া গোত্রের সাথে সম্পর্কিত
যেটি ইয়েমেনে একটি কাতাওহানী গোত্র।
একথা শুনে শায়েখ তখন কেঁদে
ফেললেন , উচ্চস্বরে আল্লাহু আকবর
বলে তাকবীর দিয়ে ওসামাকে কাছে
টেনে আনলেন , কাঁদতে কাঁদতে তার
কপালে অবিরত চুমু খেলেন এবং
বললেন নিশ্চয়ই কিয়ামত
অতি নিকটবর্তী।”
ও মুহাম্মদ বিন লাদেন !!
তোমার এই ছেলে ইমাম মাহদীর
জন্য সৈন্য প্রস্তুত করবে,ইসলামকে
সাহায্য করবে এবং খোরাসানের
পবিত্র(আফগানিস্তান)
ভূমি আবাদ করবে।
ও ওসামা !!সে সৌভাগ্যভান যে
তোমার সাথে থেকে জিহাদ করবে
আর সেই দুর্ভাগা, ক্ষতিগ্রস্হ হবে যে
তোমাকে ত্যাগ করবে ,তোমার
বিরুদ্ধে যুদ্ধ করবে।”

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s