নিরাপত্তার জন্য সিক্রেট ব্রাউজার ব্যবহার করুন বা আইপি হাইড করুন?

আইপি কি ?

এটা আপনার কম্পিউটারের এড্রেস, প্রতিটা ঘর-বাড়ির যেমন একটা ঠিকানা থাকে এবং যেটা দিয়ে তার অবস্থান বের করা যায় তেমনি আইপি দিয়েও একই কাজ করা সম্ভব ।

আইপি হাইড কেন করবেন ?

১. ব্লকড সাইট ভিজিট করতে
২.নিজের পরিচয়/প্রাইভেসি গোপন রাখতে

কিভাবে করবেন ?

পদ্ধতি ১:

প্রক্সি ব্রাউজার কিনবা অনলাইন প্রক্সি সাইট ব্যবহার করে করতে পারেন । কিন্তু এতে আপনার আইপি হাইড হলেও আপনার সম্পর্কে অনেক ইনফো বের করা যাবে । আপনি যদি হ্যাকিং এর কাজ করেন তবে ভুলেও এই সিস্টেম ফলো করবেন না । তবে যদি নরমাল ব্যবহার কারী হোন এবং ব্লকড সাইট ভিজিট করতে চান তবে এটা ব্যবহার করতে পারেন । অথবা সবচেয়ে বিশ্বাসযোগ্য এই প্রক্সি ব্রাউজার টি ব্যবহার করতে পারেন ।

টর ব্রাউজার
https://www.torproject.org/download/…d-easy.html.en
টর ব্রাউজার হচ্ছে এখনকার বিশ্বে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও নিজেকে লুকিয়ে রাখারমত একটি নিরাপদ ব্রাউজার । এটি ব্যবহার করা খুব সহজ ।

এপিক ব্রাউজার
https://www.epicbrowser.com/
এপিক ব্রাউজার আপনাকে বাড়তি একটা সুবিধা দিবে তা হচ্ছে আপনি আপনার কাংখিত সাইটে ঢুকার পর আপনাকে কে কে ট্র্যাক করতে চাচ্ছে তা দেখাবে এবং ট্র্যাকার কে এপিক ব্রাউজার অটোমেটিকভাবে ব্লক করে দিবে । তবে ব্রাউজারটি ব্যবহার করা একটু কঠিন । এপিক ব্রাউজার ইনস্টল করার পর ব্রাউজারটি আপনাকে কিছু সাজেশন দিবে । সে সাজেশন মত কাজ করলেই আপনি নিজেকে লুকিয়ে রাখতে পারবেন ।

যারা ফায়ারফক্স ব্যবহার করেন তারা আইপি নিচের ছবির মত করে পাল্টাতে পারবেন ।

 

ফায়ারফক্স এর tools>options>advanced>settings এ গিয়ে manual proxy configuration select করুন এবং http proxy তে প্রক্সি এড্রেস এবং port এর জায়গায় port দিন । এখন কথা হলো প্রক্সি এড্রেস এবং port পাবেন কোথায় ?
নিচের সাইটগুলোতে পাবেন :

http://www.proxylist.ro/
http://nntime.com/
http://ipaddress.com/proxy-list/
http://www.ip-adress.com/proxy_list/
http://sockslist.net/
http://ninjaproxies.com/

অথবা অনলাইন প্রক্সি সাইট ব্যবহার করতে পারেন । ব্যবহার করার পদ্ধতি হলো সাইটে একটা বক্স থাকবে এরপর যে সাইটে আইপি হাইড করে ঢুকতে চান তার এড্রেস দিয়ে এন্টার দিবেন । অনলাইন প্রক্সি সাইট লিস্ট:

https://hide.me/en/proxy
http://boomproxy.com/
http://www.proxybrowser.org/
http://proxybrowser.nu/
https://zendproxy.com/
https://kproxy.com/
http://proxybrowsing.com/
https://zend2.com/

পদ্ধতি ২: ভিপিএন (vpn)

VPN সম্পর্কে সবাই জানেন । এটা মিডিয়াম লেভেলের ইউজারদের জন্য । আপনি ভিপিএন ব্যবহার করে নিজের প্রাইভেসি কে হাইড করতে পারেন । তবে যদি মারাত্নক অপরাধ করেন তবে VPN ব্যবহার করা সত্ত্বেও আপনাকে ট্রেস করা সম্ভব হবে । তবে এটা অনেক কষ্টকর হবে যদি আপনি সত্যিকার অফশোর ভিপিএন চালান । আর ভালোমানের ভিপিএন পেতে চাইলে অনেক অর্থ ব্যয় করতে হবে । যাইহোক ভিপিএন অনলাইনে কিনতে পাওয়া যায় । আপনারা গুগলে অসংখ্য কোম্পানী পাবেন, কেনার সময় অ্যামেরিক্যান এবং ব্রিটিশ কোম্পানী বাদ দিবেন । যাইহোক, ফ্রিতে কিছু ভিপিএন পাবেন কিন্তু তা ব্যবহার না করাই বেটার ।
আজকে আপনাদের কে একটা প্রিমিয়াম ভিপিএন এর প্রো ভার্সন দিচ্ছি এটা ব্যবহার করতে পারেন ।

ডাউনলোড করুন: http://www21.zippyshare.com/v/A8Os59ea/file.html
password: greenweb
এক্সট্রাক্ট করুন
HSS-4.08-install-e-684 ফোল্ডারে গিয়ে সেটাপ দিন
Hotspot_Shield_Elite_Universal___greenweb.com.bd ফোল্ডারে গিয়ে ক্র্যাক ফাইল সেটাপ দিন ।
কাজ শেষ ।

পদ্ধতি ৩: RDP

বর্তমান সময়ে এটাই একমাত্র পদ্ধতি সত্যিকার অর্থে নিজেকে লুকানোর । RDP হলো Remote Desktop Protocol এর ফিচার গুলো নিচে দিলাম

Features
Microsoft RDP includes the following features and capabilities:
Encryption
RDP uses RSA Security’s RC4 cipher, a stream cipher designed to efficiently encrypt small amounts of data. RC4 is designed for secure communications over networks. Administrators can choose to encrypt data by using a 56- or 128-bit key.
Bandwidth reduction features
RDP supports various mechanisms to reduce the amount of data transmitted over a network connection. Mechanisms include data compression, persistent caching of bitmaps, and caching of glyphs and fragments in RAM. The persistent bitmap cache can provide a substantial improvement in performance over low-bandwidth connections, especially when running applications that make extensive use of large bitmaps.
Roaming disconnect
A user can manually disconnect from a remote desktop session without logging off. The user is automatically reconnected to their disconnected session when he or she logs back onto the system, either from the same device or a different device. When a user’s session is unexpectedly terminated by a network or client failure, the user is disconnected but not logged off.
Clipboard mapping
Users can delete, copy, and paste text and graphics between applications running on the local computer and those running in a remote desktop session, and between sessions.
Print redirection
Applications running within a remote desktop session can print to a printer attached to the client device.
Virtual channels
By using RDP virtual channel architecture, existing applications can be augmented and new applications can be developed to add features that require communications between the client device and an application running in a remote desktop session.
Remote control
Computer support staff can view and control a remote desktop session. Sharing input and display graphics between two remote desktop sessions gives a support person the ability to diagnose and resolve problems remotely.
Network load balancing
RDP takes advantage of network load balancing (NLB), where available.
In addition, RDP contains the following features:

Support for 24-bit color.
Improved performance over low-speed dial-up connections through reduced bandwidth.
Smart Card authentication through Remote Desktop Services.
Keyboard hooking. The ability to direct special Windows key combinations, in full-screen mode, to the local computer or to a remote computer.
Sound, drive, port, and network printer redirection. Sounds that occur on the remote computer can be heard on the client computer running the RDC client, and local client drives will be visible to the remote desktop session.

(source: microsoft)

যাইহোক, সহজ ভাষায় বলছি যারা টিমভিউয়ার কিনবা এ ধরনের সফটওয়্যার ব্যবহার করেছেন তারা জানেন এটা ব্যবহার করে সহজেই এক কম্পিউটার থেকে অপর কোনো কম্পিউটারের এক্সেস নেওয়া যায় তেমনি RDP ও একই জিনিস । এটা ব্যবহার করে আপনি অপর একটি কম্পিউটার কে নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন নিজের পিসি থেকে ।
এটা কিভাবে আইপি হাইড করে ?

প্রথমে RDP সার্ভারের আইপি হাইড করবেন ভিপিএন দিয়ে ( অবশ্যই ভালো ভিপিএন চালাবেন ), এরপর আপনি RDP server pc তে ব্রাউজার সহ অন্যান্য টুলস্ সফটওয়্যার ইনস্টল করে নিবেন এরপর আপনার পিসি থেকে RDP সার্ভারের পিসির ব্রাউজার অপেন করে কাজ করবেন ।

আপনি উন্ডোজ ভিপিএস কিনে RDP বানিয়ে চালাতে পারেন, তবে মনে রাখবেন অফশোর সার্ভার নিবেন এবং অবশ্যই আমেরিকান কিনবা ব্রিটিশ কোনো কোম্পানী এর না ।

সবশেষে বলতে চাই এসকল ভিপিএন ব্যবহার না করে আপনি সবচেয়ে অধিক নিরাপত্তার জন্য টর ব্রাউজার ব্যবহার করতে পারেন যা আপনাকে অধিক নিরাপত্তা দিবে । নরমাল নিরাপত্তার জন্য আপনি এপিক ব্রাউজার ব্যবহার করতে পারেন ।

কোনো সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাবেন ।

Advertisements